পুরুলিয়ায় পাহাড় মন্ডলীর মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় হলো অযোধ্যা পাহাড়

নিজস্ব প্রতিনিধি । জানুয়ারী ২০১৭

পুরুলিয়া পশ্চিমবঙ্গের একটি জনপ্রিয় ভ্রমণ স্থান। এখানকার মাটির রঙ লাল। এই জেলা পশ্চিমবঙ্গের মধ্য পশ্চিম সীমান্তে ঝাড়খন্ড সংলগ্ন অংশে অবস্থিত। এখানে বেশ কিছু পাহাড় এবং কংসাবতী নদীর অপরূপ প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য আপনাকে মুগ্ধ করবেই। কংসাবতী নদীর উপর তৈরী হওয়া বাঁধের উপর থেকে সুর্যাস্ত দেখা এক অদ্ভুত অভিজ্ঞতা।

হাওড়া থেকে ট্রেন অথবা ধর্মতলা থেকে বাসে করে খুব সহজেই পুরুলিয়ায় পৌঁছে যাওয়া যায়। বাস এ সময় লাগে প্রায় 8 থেকে 10 ঘন্টা। ট্রেনে সময় লাগে ৬ ঘন্টার মত।

অযোধ্যা পাহাড় - পুরুলিয়ায় সমস্ত পাহাড়ের মধ্যে সবথেকে জনপ্রিয় হলো অযোধ্যা পাহাড়। মুলত অযোধ্যা ও আশেপাশের পাহাড়গুলো নিয়ে অযোধ্যা পাহাড় পর্যটন কেন্দ্র গড়ে উঠেছে। 

থাকবেন কোথায়?
পুরুলিয়া থেকে খুব সহজেই বাস অথবা প্রাইভেট গাড়িতে করে অযোধ্যা পাহাড় যায়। পাহাড়ের উপরে থাকার বন্দোবস্ত আছে। ইচ্ছে হলে পাহাড়ের নিচে বাঘমুন্ডি গ্রামেও থাকতে পারেন। তবে পাহাড়ের উপরেই থাকার অভিজ্ঞতা হাতছাড়া করা উচিত নয়। পাহাড়ের উপরে বেশ কিছু হোটেল - মালবিকা, দূর্গা লজ, নীহারিকা, ভারত সেবাশ্রম ইত্যাদি রয়েছে।

কি কি দেখবেন?
মার্বেল লেক / পাথর খাদান - চারিদিকে পাহাড় বেষ্টিত একটি মনোরম সুন্দর লেক। পাহাড়ের গায়ে বিভিন্ন পাথরের স্তরের চিহ্ন পাবেন দেখতে। নানা রকমের পাথর দিয়ে এই লেক তৈরী। 



বামনী ফলস - অযোধ্যা পাহাড়ের সবচেয়ে আকর্ষনীয় ঝর্ণা হল বামনী ফলস। জলের ওই কল কল করে ঝরে পড়ার শব্দ শুনতে খুবই সুন্দর লাগে। এই ঝর্নার পাশ থেকে পাথরের সিঁড়ির একটি রাস্তা প্রায় ২৫০ ফুট নিচে পাহাড়ের পাদদেশে একটি লেকে গিয়ে মিশেছে। বিকেল পার করে সন্ধ্যে বেলায়  যখন সূর্য পাহাড়ের পিছনে ডুবতে ব্যস্ত, সেই দৃশ্য আপনাকেও ভাবুক করে তুলবে। রঙ্গিন আলো আঁধারির খেলায় ঝর্নার তখন এক অন্যরকম রূপ।

ঠুরগা ফলস- বামনী ফলসের বেশ কিছু দূরেই রয়েছে ঠুরগা ফলস। দুটি পাহাড়ের মাঝখানে এক চিলতে সরু ফিতের মতো জলের ধারা । পাহাড় বেয়ে একেবারে ঝর্ণার নীচে নেমে যাওয়া যায় খুব সহজেই।

লোয়ার ড্যাম - অযোধ্যা পাহাড়ের উপর কংসবতী নদীতে দুটি ড্যাম রয়েছে। এদের একটি হল লোয়ার ড্যাম। সানসেট এর জন্যে এই জায়গা খুবই মনোরম। পিছনের পাহাড় উঠে গেছে আপার ড্যাম পর্যন্ত অনেক উঁচুতে, এবং সামনে ড্যামের জল ঝিলের মধ্যে সূর্যের আলোর সাথে খেলা করে ।

আপার ড্যাম - লোয়ার ড্যাম থেকে পাহাড় ধরে উপরে উঠলেই পাওয়া যাবে আপার ড্যাম । পিকনিক করার জন্য দারুণ জায়গা!! যদিও আপার ড্যাম এ বেশ কিছু পুলিশি সতর্কতা রয়েছে। 

আপার ড্যামের বিশেষত্ব হল, এখানে জল সঞ্চয় করে রাখা হয়। পরে সেই জল থেকে টারবাইন এর মাধ্যমে বিদ্যুৎ তৈরী হয়, আর জল পৌঁছায় লোয়ার ড্যামে। আপার ড্যাম থেকে পুরো অযোধ্যা পাহাড় মন্ডলকে দেখা যায়। 

ময়ূর পাহাড় - আপার ড্যাম থেকে অযোধ্যা আসার পথে ময়ূর পাহাড় যাওয়া যায়। পাহাড়ের একদম উপরে উঠলে পুরো অযোধ্যা কেই চোখের সামনে পাওয়া যায়। অনেক বছর আগে এখানে ময়ূরের দেখা মিলত। এখন ময়ূরের দেখা পাওয়ার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। ময়ূর পাহাড়ের উপরে একটি হনুমানের মন্দির রয়েছে।

রাম মন্দির - অযোধ্যা পাহাড়ের উপরে যেখানে পর্যটন শিল্প গড়ে উঠেছে, সেখান থেকে কিছুটা দূরেই রয়েছে একটি রাম মন্দির। মন্দিরের মধ্যে রাম, সীতা , লক্ষ্মণ এর বিগ্রহ রয়েছে। মন্দিরের উপরের দেওয়ালে রামায়ণের বিভিন্ন ঘটনা চিত্রিত করা হয়েছে। এখানে কিছুটা সময় কাটিয়ে যেতে আপনার বেশ ভালৈ লাগবে।

সীতা কুন্ড - শোনা যায়,  রাম সীতা যখন অযোধ্যা পাহাড়ে ছিলেন, সীতার জল পিপাসা পাওয়ায়  রাম বান মেরে পাহাড়ে কুয়ার সৃষ্টি করেন। এই কুয়া সীতাকুন্ড নাম পরিচিত। পাহাড়ের উপরে একটি অপরূপ সুন্দর জলাধার ও পাশে উষ্ণ জলের প্রস্রবণ নিয়ে সীতাকুন্ড তৈরী। 

চরিদা- পুরুলিয়া যে ছৌ নাচের জন্য বিখ্যাত, সেই ছৌ মুখোশ এই গ্রামেই তৈরী হয়।


এই নিবন্ধটি পড়ার জন্যে ধন্যবাদ। অনুগ্রহ করে এই পেজ এবং ওয়েবসাইট সম্পর্কে আপনার বন্ধুদেরকে জানান। নিজের ফেসবুক বা টুইটারে শেয়ার করুন।ধন্যবাদ।


সেলিব্রিটি
Uttam Kumar Biography Soumitra Chatterjee Biography Ranjit Mallick Biography
Victor Banerjee Biography Chiranjit Chakraborty Biography Prasenjit Chatterjee Biography
Tapas Pal Biography Jeet Bengali Actor Biography Parambrata Chatterjee
Saswata Chatterjee Biography Suchitra Sen Biography Supriya Devi Biography
Mahuya Roy Chaudhury Biography Satabdi Roy Biography Debashree Roy Biography
Rachana Banerjee Biography Koyel Mallick Biography Srabanti Chatterjee Biography
Subhashree Ganguly Biography Nusrat Jahan Biography